সদ্য বিবাহিতা মেয়ের চিঠি তার মাকে

এখন আমার সময় একটু কম,
তবুও এক দুদিন পর পর একটা লেখা অবশ্যই পাবেন।

প্রিয় মা,
তোমাদের ছেড়ে আসার পর থেকে আমার খুব মন খারাপ করে।
সেই ছোট্টবেলা থেকে আর দশটি মেয়ের মতো আমারো বিয়ে স্বমন্ধে খুব কৌতুহল ছিলো।
ভাবতাম বিয়ে মানে, শুধুই নিজের প্রিয় স্বামীর সাথে অনেক অনেক আনন্দে থাকা..।
কিন্তু এখন যখন বিয়ে হয়ে গেছে তখন বুঝতে পারছি, বিয়ে মানেই সুখের চাদরে শুয়ে থাকা না।
বিয়ে মানেই শুধু আর শুধু আনন্দ, বরের সাথে সবসময় কাটানো তা নয়।
বিয়ে মানে হল, অনেকটা দায়িত্ব, কর্তব্য পালন, আত্মত্যাগ, নিজেকে সবরকম পরিস্থিতির জন্য প্রস্তুত রাখা।
আমি যেকোন সময়ে নিজের ইচ্ছা মত ঘুম থেকে উঠতে পারবোনা, আমাকে সবার আগে উঠতে হবে।
নিজের জীবন পরিচর্যা নিয়ে ব্যাস্ত থাকলে চলবেনা, আমাকে সবার যত্ন নিতে হবে।
বাইরে ঘুরতে যেতে পারবোনা সবসময়, আমাকে পরিবারের পাশে সবসময় থাকতে হবে।
রাজকুমারীর মতো থাকলে চলবেনা, আমায় পরিবারের প্রধান সদস্য হয়ে থাকতে হবে।
এইসব যখন চিন্তা করি, তখন ভাবি বিয়ে কেন করলাম?
আমার ফিরে যেতে ইচ্ছে করে তোমাদের কাছে, ভালোই তো ছিলাম তোমাদের কাছে।
ফিরে গিয়ে তোমাকে জ্বালাতে ইচ্ছা করে, এটা খাবো ওটা খাবো বলে।
বাবার কাছের আবদার গুলো মিস করি, ভাইয়ের সাথে খুনসুটি গুলো মিস্ করি, বন্ধুদের সাথে আড্ডাগুলো মিস করি, খুব ফিরে যেতে ইচ্ছে করে।
ঠিক তখনি তোমার কথা মনে পড়ে মা, তুমিও তো অনেক কষ্ট করেছো, অনেক ত্যাগ দিয়েছো, অনেক পরিস্থিতি সামলেছো।
এইগুলো চিন্তা করে নিজেকে শান্ত করি, ভালো লাগে মনটা...।
তুমি যখন পেরেছো তবে, আমি কেন পারবোনা!
Thanks মা, তোমার কর্তব্য, ত্যাগ, নিষ্ঠা আমার কাছে আদর্শ।
আমাকে লড়তে সাহস যোগায়। Love you মা...

0 comments:

Post a Comment