যে রোগ সমাজের

পাস কোর্স-  কি পড়াশোনা করলি অনার্স ও পেলি না!
অনার্স কোর্স - সেই তো অতদূর পড়াশোনা করে ছাত্র পেটাতে হবে!
ইঞ্জিনিয়ারিং - ঘর বাড়ি বানাবি না মেশিন মুছবি?
নার্সিং - ধুর! ও তো সবাই করে।
হোটেল ম্যানেজমেন্ট - বিদেশে যাবি রান্না করতে?
মেকওভার - তাহলে বাবার এতো টাকা খরচ করে পড়াশোনা কেনো করলি? 
অ্যানিমেশন কোর্স - কদিন পর তো চশমা নিতে হবে!
ডাক্তার - তুই তো একটু হাত কেটে গেলে চেঁচিয়ে সারা পাড়া মাথায় করিস, ডাক্তারি করবি কি করে? দেখিস মানুষ মেরে ফেলিস না!
পুলিশ - ওই তো ফিগার, কি দেখে যে চান্স পেলি! তা কতো টাকা খাওয়ালি?
ভবঘুরে - ওই তো সারাদিন এদিক ওদিক ঘুরে ঘুরে বেড়ায়, পড়াশোনা ওর দ্বারা হবে না...
মেধাবী - সবসময় বইয়ে মুখ গুঁজে থাকলে হবে? একটু বাইরেটা বেরো!
লেখক - কি লিখিস? ছড়া না পদ্য?
গায়ক - তোর দ্বারা গান হবে না, গলাটা তো পুরো কাকের মতো কর্কশ!
নৃত্যশিল্পী - কাজ নেই সারাদিন ধেই ধেই করে নেচে বেড়ায়!
সরকারি চাকরি - ও যে কেউ পায়! তা কতো ঘুষ দিলি?
বেসরকারি চাকরি - দেখ আবার কবে ঘাড় ধরে বের করে দেয়!
গৃহবধূ - এত ছোটো বয়সে বিয়ে করে এখন সংসার সামলাও!
প্রাপ্তবয়স্ক মেয়ে - কিরে কেউ পছন্দ করলোনা এখনও?
|
|
এসব কিছুনা, 
শুধু সমাজের নিজে হাতে গড়ে তোলা কৃত্রিম রোগ, যে রোগের নির্দিষ্ট কোনো ওষুধ নেই, যে রোগ ক্রমশঃ বেড়ে চলেছে বছরের পর বছর।
এই রোগের একমাত্র ওষুধ হলো এড়িয়ে চলা, নিজের মতো করে বাঁচা, নিজের ইচ্ছায় ভবিষ্যৎ প্রতিষ্ঠা করা, কারণ দিনশেষে দশটা টাকা দিয়ে কেউ সাহায্য করে না, তবে দশটা কথা শোনানোর লোক অনেক থাকে, বাঁচো নিজের মতো...

0 comments:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন