Tuesday, June 26, 2018

আমি ভাঙিনি স্যার

বাচ্চাদের জন্য আজ একটা মজার ছোটো গল্প।
এটা জদিও গল্প বাট গ্রামের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় গুলির অবস্থা এর থেকে ভালো কিছু নয়।

 স্কুল পরিদর্শক ক্লাস ফাইভের ছাত্র জিতুকে প্রশ্ন করলোঃ-
বলোতো হরধনু কে ভেঙে ছিল?
.
জিতুঃ- আমি ভাঙিনি স্যার । ঐ যে ওই আবির ভেঙেছে।
.
আবিরঃ- না স্যার, আমি ভাঙিনি । ওই জিতু মিছা কথা কইতাছে।
.
পরিদর্শক ক্লাস থেকে বেরিয়ে ক্লাস টিচারকে জিজ্ঞেস করলোঃ- কি পড়াচ্ছেন এখানে ? ছাত্ররা সামান্য একটা প্রশ্নের এই রকম উত্তর দিচ্ছে ?
.
ক্লাস টিচার :-- স্যার, জিতু আর আবির কিন্তু সত্যিই খুব ভালো ছেলে। ওরা এই সব ভাঙচুর করে না। আর পটলা টা এক নম্বরের দুষ্ট।
ওই পটলা ই ভাঙ্গতে পারে।
.
স্কুল পরিদর্শক মাথায় হাত দিয়ে আর কথা না বাড়িয়ে হেড মাষ্টার মশাই এর রুমে গিয়ে 
সব বিস্তারিত জানালোঃ-  এখানে কি সত্যিই কিছু পড়াশোনা হয়? ছাত্ররা না হয় জানেনা, কিন্তু তাই বলে শিক্ষকের ও এই দশা ?
.
হেড মাষ্টারঃ- দেখুন স্যার, ওই ক্লাস টিচার অনেক দিন ধরে পড়াচ্ছেন, প্রতিটি ছাত্রকে তিনি ভালো মতই চেনেন। তিনি যখন বলছেন পটলা 
ভেঙেছে তাহলে পটলাই ই ভেঙেছে।
.
স্কুল পরিদর্শক আর কথা না বাড়িয়ে চলে গেলেন,
এবং স্কুল শিক্ষাবোর্ডে চিঠি লিখলেন।
যে স্কুলে কেউই "হরধনু কে ভেঙেছে" তাও জানে না, সেই স্কুল রাখার কোনো দরকার নেই।
.
.
কিছু দিন পরে শিক্ষাবোর্ড থেকে উত্তর এল:

*বাচ্চা-কাচ্চা রা ভাঙ্গাভাঙ্গি করতেই পারে। তার জন্য স্কুল উঠিয়ে দেবার দরকার নেই। এটা বিরোধীদের চক্রান্ত। আমরা ওসব বুঝি। ওদের কথায় কান দেবেন না। উন্নয়নের স্বার্থে আমরা অনুমোদন দিয়ে দিচ্ছি, আর একটা হরধনু কেনা হোক...!!!*

0 comments:

Post a Comment